1. admin@dainikhabigonjeralo.com : admin :
মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১, ১১:৪৩ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
নাটোরে অনুমোদনহীনভাবে ভাটা করায় কারাদন্ড সহ ১০ লাখ টাকা অর্থদন্ড নাটোরে কৃষি শ্রমিক পরিবহনে হাইওয়ে পুলিশের হয়রানি বোরো ধান কর্তনে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান ও গৃহহীনদের জন্য বরাদ্দকৃত ঘর পরিদর্শন করলেন জেলা প্রশাসক নবীগঞ্জে এতিম শিক্ষার্থীদের মাঝে হবিগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার এর ইফতার সামগ্রী বিতরণ চুনারুঘাটে ৭ কেজি গাজাঁসহ এক নারী আটক চুনারুঘাটে ২টি তক্ষক উদ্ধার যৌনপল্লিতেও পড়েছে লকডাউনের প্রভাব পুরুষশূণ্য পল্লী আজ অসহায় মাধবপুর উপজেলার ইউএনওর কাবিখা প্রকল্প পরিদর্শন গোয়ালন্দে ইউনুস মোল্লার উদ্যোগে স্বাস্থ্যসুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ বড়াইগ্রামে গ্যাস টেবলেট খেয়ে গৃহবধুর আত্মহত্যা

টমেটোর চাষিরা দাম কমে যাওয়া তোলা বন্ধ করে দিয়েছেন

রিপোর্টারের নাম
  • প্রকাশিত : রবিবার, ৭ মার্চ, ২০২১
  • ৫৮ বার পড়া হয়েছে

নাজমুল হোসেন

গোয়ালন্দ উপজেলা প্রতিনিধিঃ

  • গোয়ালন্দে টমেটো দাম কমে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন চাষিরা।খরচ না উঠায় অনেক কৃষক টমেটো ক্ষেত থেকে তোলা বন্ধ করে দিয়েছেন। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বর্তমানে মাঠ থেকে কাঁচা টমেটো ৩ টাকা কেজি এবং পাঁকা টমেটো ৫টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

কিন্ত উত্তোলিত টমেটো হাট-বাজার ও অস্হায়ী বিক্রয় কেন্দ্রে নেয়ার খরচ ও শ্রমিকের মজুরি বাদ দিলে কৃষকের হাতে কিছুই থাকছেনা।
টমেটোর দাম না পাওয়ায় গরুর খাবারে পরিণত হয়েছে।

উপজেলার টমেটো চাষিরা জানিয়েছেন, শুরুর দিক লাভের মুখ দেখলেও মৌসুমের শেষ মুহূর্তে এসে উৎপাদন খরচ তুলতে কৃষকদের অনেক কষ্ট হচ্ছে।

কৃষক ও ব্যবসায়ীদের লোকসানের হাত থেকে রক্ষা করতে আগামীতে এ অঞ্চলে সরকারিভাবে হিমাগার নির্মাণ ও প্রক্রিয়াজাতকরণের দাবি জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

গোয়ালন্দ উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, চলতি মৌসুমে এ উপজেলায় ৪০০ হেক্টর জমিতে টমেটো চাষ হয়েছে।

উপজেলার দেবগ্রাম ৪০শতাংশ জমিতে টমেটো চাষ করেছে গত বছরের তুলনায় এবার টমেটোর ফলন ভাল। তবে একেবারেই দাম নেই গত বছরেও তাদের লোকসানে পড়তে হয়েছিল রোগ-বালাইয়ের জন্য। আর লোকসানে পড়তে হয়েছে এবার দাম না পেয়ে এভাবে চলতে থাকলে কৃষকেরা টমেটোর আবাদ থেকে মুখ ফিরিয়ে নেবে।

দেবগ্রামের টমেটো চাষি হানিফ মোল্লা বলেন, ২২শতাংশ জমিতে টমেটো চাষ করেছি।এখন পর্যন্ত টমেটো বিক্রি করেছি মাত্র ৭ হাজার টাকার ২২ শতাংশ জমিতে টমেটো চাষ করতে খরচ হয়েছে আনুমানিক ৩৫হাজার টাকা খরচের টাকা উঠছে না । এখন ক্ষেত থেকে টমেটো তুলে যে টাকা পাচ্ছি তা দিয়ে শ্রমিকদের মজুরি হচ্ছে না তাই ক্ষেত থেকে টমেটো তোলা বন্ধ করে দিয়েছি।

টমেটো ব্যবসায়ী আজাদ জানান, ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানে টমেটোর প্রচুর আমদানি সে জন্য চাহিদা কম তা ছাড়া গ্রাম থেকে কম দামে টমেটো কিনলেও পরিবহন খরচ অনেক এমতাবস্থায় বর্তমানে টমেটো কেনা বন্ধ করে দিয়েছি।

গোয়ালন্দ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম বলেন, গোয়ালন্দ উপজেলায় আগাম টমেটো চাষ হয় প্রথম দিকে ভালো দাম পাওয়া যায় এই সময় টমেটোর দাম কম থাকে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত