1. admin@dainikhabigonjeralo.com : admin :
বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ০৭:০০ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
ঈদ-উল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন এ আর হারুন অর রশিদ বাঘ বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও সমাজ সেবক স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদ উদযাপন করতে আহবান জানান আবুল হাসেম রতন ইসরায়েলি বর্বরতা কদরের রাতে জেরুজালেমে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মানবতার ফেরিওয়ালা মোহাম্মদ দিলু তালুকদার বীরগঞ্জে বজ্রপাতে এক মহিলার মৃত্যু টেক্সাসে লোকালয়ে বাঘ- গ্রেফতার সন্দেহভাজন মালিক সাংবাদিক শাহ মাইনুল হাসান খোকনের পক্ষ থেকে ঈদের শুভেচ্ছা জাগ্রত তরুণ সোসাইটি মাধবপুর সামাজিক সংগঠনের পক্ষ থেকে ঈদের শুভেচ্ছা গলাচিপায় গরু চুরির অভিযোগে যুবককে পিটিয়ে হত্যা সম্প্রতি চীনা রাষ্ট্রদূতের বক্তব্য কূটনৈতিক শিষ্টাচার পরিপন্থী -মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি

বানিয়াচংয়ের হাওরের ধান দ্রুত কাটার আহবান

রিপোর্টারের নাম
  • প্রকাশিত : শনিবার, ১ মে, ২০২১
  • ২১ বার পড়া হয়েছে

নোমান আহমেদঃ

আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী আগামী তিন দিনের মধ্যে বানিয়াচংয়ের হাওরের ধান কেটে ফেলার আহবান জানিয়েছে বানিয়াচং উপজেলা প্রশাসন।

তাছাড়া ঘরের উপর ঝুঁকিপূর্ণ গাছ বা ডাল থাকলে তাও কেটে রাখার আহবান জানানো হয়েছে।

শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪ টার দিকে বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মাসুদ রানা তার অফিসিয়াল ফেসবুক আইডিতে এ আহবান জানান।

এছাড়াও যেকোনো জরুরি প্রয়োজনে উপজেলা প্রশাসন বা সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের সাথে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

অফিসিয়াল ফেসবুক আইডিতে ইউএনও মাসুদ রানা লিখেছেন, ‘আগামী ৩ দিনের মধ্যে ঝড় ও শিলাবৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। দ্রুত পাকা বোরো ধান কেটে ফেলুন। ঘরের উপরে ঝুঁকিপূর্ণ গাছ বা ডাল থাকলে কেটে ফেলুন।
যে কোন জরুরি প্রয়োজনে উপজেলা প্রশাসন বানিয়াচং বা আপনার ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের সাথে যোগাযোগ করুন।’

এদিকে শ্রমিক সংকটের কারণে জমিতে পাকা ধান নিয়ে বিপাকে পড়েছেন অনেক কৃষক। এবছর দেশের অন্যান্য অঞ্চল থেকে ধান কাটা শ্রমিক কম আসায় সময়মত পাকা ধান কাটতে পারছেন না কৃষকরা। অনেক কে আবার বেশি টাকা দিয়ে ধান কাটাতে হচ্ছে।

উপজেলার ২ নং উত্তর-পশ্চিম ইউনিয়নের চানপাড়া মহল্লার কৃষক বশির আহমেদ বলেন, ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে এবার। দামও বেশ ভালো। তবে শ্রমিক সংকটের কারনে পাকা ধান স্থানীয় শ্রমিক দিয়ে বেশি টাকা দিয়ে ধান কাটাতে হচ্ছে।

তিনি বলেন, ‍“এক কানি জমির ধান কাটতে আমার গুনতে হচ্ছে ৩ থেকে সাড়ে ৩ হাজার টাকা। তাও আবার চাহিদা অনুযায়ী শ্রমিক পাচ্ছিনা।”

একই সুরে কথা বলেন আদমখানির কৃষক শওকত আলী।

তিনি বলেন, ২৪ কানি জমিতে বোরো ধানের আবাদ করেছি এবছর। ফলন ভালো হয়েছে। সবকটি জমির ধান পেকে গিয়েছে। তবে শ্রমিক সংকটের কারণে অধিকাংশ জমির ধান এখনও কাটতে পারছি না।’
সময়মত ধান কেটে ঘরে তুলতে পারবেন কি না এ নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন কৃষকরা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত