1. admin@dainikhabigonjeralo.com : admin :
শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ০৭:৫৫ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের বাস্তবায়নে ১০ লাখ টাকা ব্যয়ে দূর্গা মন্দিরের নির্মান কাজের উদ্বোধন মাধবপুরে প্রবাসী একতা সমাজ – সেবা সংগঠনের পক্ষ থেকে ঈদ সামগ্রী বিতরণ হবিগঞ্জের মাধবপুরের ছাত্রনেতার পক্ষ থেকে ৫০০টি হত দরিদ্র পরিবারের মাঝে ইফতার বিতরণ টঙ্গীতে হাসান উদ্দিন এর উদ্যোগে অসহায়দের মাঝে উপহার সামগ্রী বিতরণ নিউইয়র্কে বাংলাদেশি আমেরিকান পুলিশ এসোসিয়েশনের ইফতার মাহফিল অনুষ্টিত নবীগঞ্জে দিলু তালুকদারের উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত নীলফামারীতে গাছ চাপায় স্বামী-স্ত্রী ও বর্জ্রপাতে এক নারী নিহত জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধে লালপুরে ছোট ভাইয়ের হতে বড় ভাই খুন,আটক-৫ অতিরিক্ত যাত্রীর চাপে মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্য বিধি দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটের ফেরী কুষ্টিয়ায় সেফটি ট্যাংকের ভিতরে দুই নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু

রংপুরের ছেলে সিলেটে প্রতারনার ফাঁদে আটক

রিপোর্টারের নাম
  • প্রকাশিত : শুক্রবার, ১৯ মার্চ, ২০২১
  • ১৩৩ বার পড়া হয়েছে

তোফায়েল আহমদ, সিলেট জেলা প্রতিনিধিঃ

রংপুরের এক ছেলে সিলেটে প্রতারনার ফাঁদে আটক এর ঘটনার তথ্য পাওয়া যায়।  মোঃরাসেল শেখ পিতাঃ মোঃ আবুবকর শেখ মাথাঃ মৃত রাশেদা বেগম স্থায়ী ঠিকানাঃ গ্রাম- সুগানপুর পো- পীরগাছা থানা – পীরগাছা জেলা – রংপুর গত ২১শে মার্চ ২০১৫ সালে মাস শেষে ভালো টাকা পাবেন এবং বউ, মা বাবা কে নিয়া ভালোভাবে চলতে পারবেন এই আশা নিয়ে এলকো ফার্মাতে চাকুরীর সুবাধে সিলেটে আসেন। সিলেটে এসে “মেডিকেল প্রমোশন অফিসার হিসাবে ” চাকুরী শুরু করলে তিনি জানতে পারেন যে, কোম্পানী বার্ষিক বাকিতে ফার্মেসীতে প্রোডাক্ট বিক্রি করে আসছিল এরই ধারা বাহিকতায় রাসেল শেখ ও আগের ন্যায় শুরু করতে বাধ্য হোন, তিনি কখনো খেয়ে কখনো না খেয়ে দিন যাপন করেন, একটি ম্যাচ ভাড়া করেন যদিও শুরুতে স্ত্রীকে নিয়ে আসলে ও পরবর্তীতে যখন চলতে পারছিলেন না তখন স্ত্রীকে শ্বশুর বাড়ীতে পাঠিয়ে দেন এবং ডাক্তার আর ফার্মেসীর মালিকরা রাসেলের আপনজনে পরিনত হোন। এভাবে দিন যায় বছর যায় রাসেলের নামে বড় অংকের বাকীর খাতা কোম্পানীতে খোলে যায় এবং ভয়ে চাকুরী ছাড়ার কথা বলতে পারতেন না, মায়ের মৃত্যুর পর রাসেল চাকুরী ছেড়ে বাড়িতে চলে গেলে রাসেলের সাথে তার উর্ধতন কর্তৃপক্ষের খারাপ ব্যবহার শুরু হয়। গত ১৯/০১/২০২১ইং তারিখে বাড়ীথেকে ফিরলে শেখ রাসেলকে এলকো ফার্মার সিলেট আম্বরখানা বড়বাজার অফিসে ডেকে নিয়ে তার কাছ থেকে তার ফিল্ড ম্যানেজার আকরাম এবং রিজিওনাল সেলস ম্যানেজার ওমর ফারুক ৩০০ টাকার ষ্ট্যাম্পে কোম্পানির মার্কেটে থাকা টাকা তাদের পার্সোনাল টাকা বলে জোর পূর্বক রাসেলের কাছ থেকে স্বাক্ষর নেন এবং আরো একটি ব্ল্যাংক চেক নিয়ে নেন। রাসেল বিষয়টি কানাইঘাট এলাকার ফার্মেসীর মালিকদের জানালে তারা আকরামকে ডাকেন আকরাম কর্নপাত না করে গত ১০/০২/২০২১ইং তারিখে আবার কানাইঘাট থেকে রাসেলকে ফোন করে সিলেটে নিয়ে যান ওমর ফারুক সাহেব একই কায়দায় রাসেলকে জিম্মি করে পুনরায় আরো ৩০০টাকার ব্ল্যাংক ষ্ট্যাম্প ও চেকে স্বাক্ষর নেন। এবং বলেন যে টাকা উঠাইয়া মার্কেট থেকে ১৫ দিনের মধ্যে না দিলে রাসেলের বিরুদ্ধে চেক ডিজ অনার মামলা করা হবে এই ভয়ে রাসেল বিভিন্ন লোকজনের স্মরনাপন্ন হইলে আহমদ ফার্মেসী কানাইঘাটে একটি বৈঠক হয় এবং সুন্দর সমাধানের চেষ্ঠা করা হয় এতে কোন লাভ নেই কে শুনে কার কথা? কারন রাসেলের বাড়ী সিলেটে না তাই রাসেলকে যা ইচ্ছা তা করা যাবে এটাই অফিসের ষ্টাফের ধারনা। একইভাবে অন্য আরেকজন এলকো ফার্মার কলিগের সাথে যোগাযোগ করলে নাম না বলার স্বার্থে তিনি বলেন ওমর ফারুক সাহেবের কারনে কোম্পানীতে কোন ছেলে চাকুরী করতে পারেনা অদ্য ফেব্রুয়ারী মাসে সকল পুরনো ম্যানেজার ও ওনেক কলিগ কোম্পানী থেকে চলেযেতে বাধ্য করা হয়েছে। চলে যাওয়া কলিগদের কাছ থেকে আদায় করা ব্ল্যাংক চেক আর ডিডের ভয়ে কেউ কথা বলতে চান না। আমরা দৈনিক হবিগঞ্জের আলো পত্রিকার সিলেট জেলা প্রতিনিধি ঘটনার সত্যতা জানতে চাইলে কোম্পানীর কারো কাছ থেকে কোন সদুত্তর পাওয়া যায় নাই, এবং ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত