1. admin@dainikhabigonjeralo.com : admin :
শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ০৭:০০ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের বাস্তবায়নে ১০ লাখ টাকা ব্যয়ে দূর্গা মন্দিরের নির্মান কাজের উদ্বোধন মাধবপুরে প্রবাসী একতা সমাজ – সেবা সংগঠনের পক্ষ থেকে ঈদ সামগ্রী বিতরণ হবিগঞ্জের মাধবপুরের ছাত্রনেতার পক্ষ থেকে ৫০০টি হত দরিদ্র পরিবারের মাঝে ইফতার বিতরণ টঙ্গীতে হাসান উদ্দিন এর উদ্যোগে অসহায়দের মাঝে উপহার সামগ্রী বিতরণ নিউইয়র্কে বাংলাদেশি আমেরিকান পুলিশ এসোসিয়েশনের ইফতার মাহফিল অনুষ্টিত নবীগঞ্জে দিলু তালুকদারের উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত নীলফামারীতে গাছ চাপায় স্বামী-স্ত্রী ও বর্জ্রপাতে এক নারী নিহত জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধে লালপুরে ছোট ভাইয়ের হতে বড় ভাই খুন,আটক-৫ অতিরিক্ত যাত্রীর চাপে মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্য বিধি দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটের ফেরী কুষ্টিয়ায় সেফটি ট্যাংকের ভিতরে দুই নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু

বীরগঞ্জে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জমিতে অবৈধ দোকান-ঘর অপসারণের দাবি জনসাধারণের

রিপোর্টারের নাম
  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ৪ মে, ২০২১
  • ৭১ বার পড়া হয়েছে

মোঃ নাজমুল ইসলাম, বীরগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার ১নং শিবরামপুর ইউনিয়নের মুরারীপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জমিতে অবৈধ দোকান ঘরগুলি অপসারণের দাবি করেছেন স্থানীয় জনসাধারণ।

আজ, ৩’মে (সোমবার) মুরারীপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এই অবৈধ দোকানঘর উচ্ছেদের দাবিতে স্থানীয় ছাত্রছাত্রীদের অভিভাবক বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটি ও শিক্ষকদের সাথে কথা হলে এই দাবি করেন। ১৯৩৭ সালে স্থানীয় কিছু বিদ্যানুরাগী ব্যাক্তিদের আন্তরিকতায় এই প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ১.১৩ একর জমির উপর মুরারীপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়টি স্থাপিত হয়। পরে ১৯৪৭ সালে সমস্ত জমি বিদ্যালয়ের নামে সাব রেজিষ্ট্রারী করা হয়। অনেক পুরানো এই বিদ্যালয়ের খেলার মাঠে খেলাধুলা আর শিক্ষা গ্রহন করে অনেক ছাত্রছাত্রী দেশের অনেক বড় বড় কর্মকর্তা হয়ে দায়িত্ব পালন করছেন।

এই বিদ্যালয়ের মাঠে এক সময় ছোট ছোট অস্থায়ী দোকান ঘর বসিয়ে অনেকে দোকান করে জীবন জীবিকা পরিচালনা করলেও আস্তে আস্তে রড সিমেন্টে ইট দিয়ে ঘর তৈরী নিজের দখলে নিয়ে নেয়। এখন বিদ্যালয়ের মাঠ দখল করতে করতে বিদ্যালয়ের ঘর ঘেষে জায়গা দখল করে নিয়েছে স্থানীয় কয়েকজন প্রভাবশালী।

মুরারীপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি মহির উদ্দীন বলেন, আমাদের এই গ্রামের একমাত্র প্রাথমিক বিদ্যালয়ের খেলার মাঠ স্থানীয় কিছু অসাধু ব্যাক্তিদের নিজের স্বার্থ সিদ্ধির জন্য বিদ্যালয়ের মাঠ দখল করে নেয়।

গত ২০০৫ সালে বিদ্যালয়ের পক্ষে খেলার মাঠে অবৈধ দোকানঘর উচ্ছেদের জন্য মামলা আনায়ন করা হয়। ২০১২ সালে অবৈধ দখলদারদের দোকানঘর ভেঙ্গে নেওয়ার আদালত নির্দেশ প্রদান করেন। দখলদারা একত্রিত হয়ে নিম্ম আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করলে ২০১৫ সালে উচ্চ আদালত নিম্ম আলতের রায় বহাল রাখেন।

স্থানীয় উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সহিমউদ্দীন বলেন, স্থানীয় কিছু ভুমিদস্যুদের হাত থেকে বিদ্যালয়টি রক্ষা করুন। আমরা দোকান চাইনা, আমরা বিদ্যালয় চাই। এই বিদ্যালয়ে স্থানীয় গরীব মানুষের ছেলে মেয়েরা খেলাধুলা করবে এটাই আমরা চাই। মুরারীপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিরেন্দ্রনাথ রায় বলেন, এই বিদ্যালয়ে ২ শতাধিক ছাত্রছাত্রী লেখা পড়া করে। বিদ্যালয়ের খেলার মাঠ দখল করতে এখন জোড় ধবস্তি করে বিদ্যালয়ের একমাত্র ভবনের গা ঘেষে দোকান ঘর তৈরী করে মাঠ দখলের মহাৎসব শুরু করেছে প্রভাবশালী কয়েকজন ব্যাক্তি। এই ভুমি দস্যুদের সাথে স্থানীয় ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা সরাসরি জড়িত।

মুরারীপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সত্যেন্দনাথ রায় বলেন, বিদ্যালয়ের পক্ষে আদালত কর্তৃক রায় ঘোষনার পর বিদ্যালয় মাঠ হতে অবৈধ দোকানঘর নিজ নিজ ভাবে অবৈধ দখলদাররা দোকানঘর ভেঙ্গে নিয়ে চলে যায়। কিন্তু আবার ১২/ ১৪ আগে আবার এই দখলদারা রাতের অন্ধকারে পুনরায় দোকান ঘর তৈরী করছে। অবৈধ দোকান ঘর তৈরীতে বাধা দেওয়া হলে তারা পেশি শক্তি ও রাজনৈতিক ক্ষমতা দাপট দেখিয়ে বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের আঘাত করার জন্য তেরে আসে। বিষয়টি বীরগঞ্জ উপজেলা নিবাহী অফিসার কে লিখিত ভাবে অভিযোগ করা করা হয়েছে।

বীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আব্দুল কাদের বলেন, মুরারীপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে অভিযোগের প্রেক্ষিতে সরে জমিন ঘুরে দেখা গেছে যে স্থানীয় কিছু অসাধু ব্যাক্তিরা অবৈধ ভাবে বিদ্যালয়ের মাঠ দখল করে দোকান ঘর তৈরী করেছে। অবৈধ দখলদাররা ১০ দিনের মধ্যে তারা তাদের ঘর ভেঙ্গে নিয়ে যাবে এমন প্রতিশ্রতি দিয়েছিল। তিনি বলেন এ বিষয়ে একটা আদালতে মামলাও হয়েছিল আদালতের রায়ে দেখা গেছে বিদ্যালয়ের পক্ষে আদালত একটা রায় দিয়েছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত